দুর্গা পূজার কেনাকাটার জন্য কলকাতার বিখ্যাত বাজার

আর মাত্র কয়েকটা দিনের অপেক্ষা, দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে উদযাপিত হতে চলেছে বাঙালির শ্রেষ্ঠ শারদীয় দুর্গোৎসব। দুর্গা পূজা আসছে আসছে এই ব্যাপারটা আমাদের অন্তরে এক অদ্ভুত অনুভূতির সৃষ্টি করে, যা হয়তো ঠিক ভাষায় প্রকাশ করা সম্ভব নয়। তার উপরে পূজার কেনাকাটা এই আনন্দকে বহুগুণে বাড়িয়ে দেয়। ছোটবেলা থেকেই দেখে আসছি প্রত্যেক বাঙালি দুর্গা পূজা উপলক্ষ্যে পরিবার পরিজন থেকে শুরু করে প্রত্যেকটি কাছের মানুষের জন্য চুটিয়ে কেনাকাটা করে থাকেন। নতুন জামার সেই মন মাতানো সুবাসের কোন তুলনাই হয় না। আর নতুন জুতো পরে প্যান্ডেল হপিং-এর অভিজ্ঞতা কষ্টদায়ক হলেও সেই কষ্ট নিমেষেই দূর হয়ে যায় দুর্গা প্রতিমা দর্শনের পর। জুতো থেকে শুরু করে জামা কাপড়ের দোকানের সেরা ঠিকানাগুলি জানা থাকলে পূজার কেনাকাটা করতে বেশ সুবিধা হয়। তাই আজকে আমার লেখনীতে রইল দুর্গা পূজার কেনাকাটার জন্য কিছু কলকাতার বিখ্যাত বাজার সম্বন্ধে বিশেষ তথ্য।

গড়িয়াহাট

কলকাতা সহ শহরতলীর বেশিরভাগ মানুষের কাছে পূজার কেনাকাটা মানেই গাড়িয়াহাট। এই জায়গাটিতে সারা বছরই জনস্রোত দেখতে পাওয়া গেলেও বিশেষত এই পূজার সময় জনসমাগম হাজার গুনে বেড়ে যায়। দুর্গা পূজা আর বাঙালি মানেই শাড়ি ও পাঞ্জাবি। বহু খ্যাতনামা শাড়ি ও পাঞ্জাবির প্রতিষ্ঠান রয়েছে গাড়িয়াহাটে। এছাড়া নামকরা জুতোর দোকান থেকে শুরু করে মহিলাদের প্রসাধনী সামগ্রীর অগুনতি দোকান রয়েছে এখানে। এখানকার প্রধান আকর্ষণ নানান ধরণের কানের দুল, গলার হার, চুরি ইত্যাদি, যেগুলি মহিলাদের কাছে খুবই লোভনীয়। গোটা রাস্তার ধার জুড়ে এই ধরণের সাজার জিনিসের অকল্পনীয় সম্ভার আপনি দেখতে পাবেন গড়িয়াহাটে। বড় বড় নামকরা বস্ত্র প্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে রাস্তার ধারের ছোট ছোট রকমারি জিনিসের সম্ভার নিয়ে গড়িয়াহাট কলকাতার বিখ্যাত বাজার হিসাবে সেরার তালিকায় নিজের জায়গা করে নিয়েছে।

নাম ও ঠিকানা সহ এখানকার কিছু বিখ্যাত বস্ত্র প্রতিষ্ঠানের তালিকা নিচে দেওয়া হল-

প্রিয় গোপাল বিষয়ী – তাঁত, জামদানি, বেনারসি, হ্যান্ডলুম, ইক্কত, বালুচরি থেকে শুরু করে রকমারি আভিজাত্যপূর্ণ বিপুল শাড়ির সম্ভার রয়েছে এই প্রতিষ্ঠানটিতে।
ঠিকানা- ১১৩, ১এ, রাসবিহারী এভিনিউ, ট্রায়াঙ্গুলার পার্কের বিপরীতে, ডোভার টেরেস, গড়িয়াহাট, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ ৭০০ ০২৯।

ট্রেডার্স এসেমব্লী – সিল্কের শাড়ি কখনই আউট অফ ফ্যাশন হয় না, আর সেই সিল্কের শাড়ির সেরা ঠিকানা মানেই গড়িয়াহাটের ট্রেডার্স এসেমব্লী।
ঠিকানা- ১৬১বি, রাসবিহারী এভিনিউ, ডোভার টেরেস, গড়িয়াহাট, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ ৭০০ ০১৯।

লেগেসি অফ ভোজরাজ-  ব্রাইডাল ও পার্টি ওয়্যার শাড়ির বিপুল সম্ভার রয়েছে এই প্রতিষ্ঠানটিতে।
ঠিকানা- ১৪১বি, রাসবিহারী এভিনিউ, গড়িয়াহাট, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ ৭০০ ০২৯। 

বাইলুম-  এই প্রতিষ্ঠানটিতে আপনি পেয়ে যাবেন হ্যান্ডলুম শাড়ির বিপুল সম্ভার।
ঠিকানা- ৫৮বি, হিন্দুস্থান পার্ক, গোলপার্ক, গড়িয়াহাট, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ ৭০০ ০২৯।

নিউ পাঞ্জাবি স্টোর্স-  ছোট থেকে বড় সব বয়সী পুরুষদের জন্য ধুতি-পাঞ্জাবি থেকে শুরু করে শেরওয়ানির বিপুল সম্ভার রয়েছে এই প্রতিষ্ঠানটিতে।
ঠিকানা-  ২০৮, রাসবিহারী এভিনিউ, গোলপার্ক, হিন্দুস্থান পার্ক, গড়িয়াহাট, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ ৭০০ ০২৯।

কলেজ স্ট্রীট ও বড়বাজার

পূজার কেনাকাটার জন্য কলকাতার বিখ্যাত বাজার হিসেবে কলেজ স্ট্রীটের দোকানগুলি বাঙালিদের মন কেড়ে নিয়েছে। এছাড়া কলেজ স্ট্রীট থেকে কিছু দূরেই রয়েছে বড়বাজার। বড়বাজারে আপনি পেয়ে যাবেন বহু পাইকারি দোকান, যেখান থেকে চাইলে আপনি পাইকারি দামে জামা কাপড় থেকে শুরু করে আপনার প্রয়োজনীয় যাবতীয় জিনিস কেনাকাটা করতে পারেন। সেক্ষেত্রে আপনাকে একসাথে বেশি পরিমাণে জিনিস ক্রয় করতে হবে পাইকারি বিক্রেতাদের কাছ থেকে। এছাড়া বড়বাজারের চিৎপুরে পেয়ে যাবেন অগুনতি পাঞ্জাবির দোকান।

নাম ও ঠিকানা সহ কলেজ স্ট্রীট ও বড়বাজারের কিছু বিখ্যাত বস্ত্র প্রতিষ্ঠানের তালিকা নিচে দেওয়া হল-

আদি মোহিনী মোহন কাঞ্জিলাল-  ছাপা শাড়ি থেকে শুরু করে বিয়ের বেনারসি অথবা  ধুতি-পাঞ্জাবি থেকে শুরু করে শেরওয়ানি সব রকম বাঙালি পোশাকের বিপুল সম্ভার রয়েছে এই প্রতিষ্ঠানটিতে। বিয়ে অথবা পূজা বা অন্য যেকোনো অনুষ্ঠানের কেনাকাটা করতে আপনি সপরিবারে চলে আসতে পারেন এই প্রসিদ্ধ বস্ত্র প্রতিষ্ঠানটিতে।
ঠিকানা- ৭৯/২, মহাত্মা গান্ধী রোড, কলেজ রো, কলেজ স্ট্রিট, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ ৭০০ ০০৯।

আদি ঢাকেশ্বরী- গাদোয়াল, গরদ, বেনারসি, ঢাকাই জামদানি থেকে শুরু করে রকমারি আভিজাত্যপূর্ণ শাড়ির বিপুল সম্ভার রয়েছে এই প্রতিষ্ঠানটিতে।
ঠিকানা-  ৫৭, ১, কলেজ স্ট্রীট, কলেজ রো, কলেজ স্কোয়ার, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ ৭০০ ০৭৩।

আদি ইন্ডিয়ান সিল্ক হাউস- এই প্রতিষ্ঠানটিতে আপনি পেয়ে যাবেন বিভিন্ন ধরণের সিল্কের শাড়ির আকর্ষণীয় ও বিপুল সম্ভার।
ঠিকানা- ৫৬, কলেজ স্ট্রীট, কলেজ রো, বর্ণপরিচয় মার্কেটের বিপরীতে, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ ৭০০ ০৭৩।

প্রিয় গোপাল বিষয়ী – গড়িয়াহাট ছাড়াও প্রিয় গোপাল বিষয়ীর আরও একটি শাখা রয়েছে বড়বাজার এলাকায়।
ঠিকানা- ২০৮, মহাত্মা গান্ধী রোড, বড়বাজার, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ ৭০০ ০০৭।

নিউ মার্কেট

কলকাতার বিখ্যাত বাজার নিউ মার্কেটের সাথে তার নামের প্রকৃতপক্ষে কোনও সাদৃশ্যই নেই।

কলকাতার প্রাচীনতম এই বাজারটি ১৮৭৪ সালে ভারতে ঔপনিবেশিক শাসনামলে নির্মিত প্রথম মিউনিসিপাল মার্কেট। ১৯০৩ সালে স্যার স্টুয়ার্ট হগ এর নামানুসারে এই বাজারটির নামকরণ হয়েছিল হগস মার্কেট। কলকাতার বিখ্যাত বাজার হিসেবে এর খ্যাতি এতটাই বিস্তার লাভ করেছে যে পূজার সময় শহরের বাইরে থেকেও মানুষের ভিড় এসে জমা হয় নিউ মার্কেটে। বিভিন্ন দামের ও মানের পোশাক থেকে শুরু করে জুতো, প্রসাধনী সামগ্রী, ব্যাগ, ঘর সাজাবার জিনিস কি না পাওয়া যায় এইখানে। ২০০০ টিরও বেশি স্টল রয়েছে নিউ মার্কেটে। তবে নিজেকে দর কষাকষির করার জন্য প্রস্তুত করে তবেই কেনাকাটা করতে আসতে হবে এই জায়গাটিতে।

ঠিকানা-  লিন্ডসে স্ট্রীট, নিউ মার্কেট এলাকা, ধর্মতলা, তালতলা, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ ৭০০ ০৮৭।

হাতিবাগান

বহু প্রাচীনকাল থেকে কলকাতার বিখ্যাত বাজার হিসেবে জনপ্রিয়তা লাভ করেছে উত্তর কলকাতার হাতিবাগান। আপনি এখানে অবিশ্বাস্যভাবে সাশ্রয়ী মূল্যে আপনার প্রয়োজনীয় যাবতীয় সামগ্রী পেয়ে যাবেন। পূজার কেনাকাটার জন্য হাতিবাগান গেলে অতি অবশ্যই এখানকার অল্প দামের অথচ সেরা মানের সিল্কের শাড়ি কিনতে একদমই ভুলবেন না।

ঠিকানা- ১২২, শ্রী অরবিন্দ সরণি রোড, মানিকতলা, খান্না, শ্যামবাজার, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ ৭০০ ০০৬।

শপিং মল

কখনও প্রবল বৃষ্টি তো কখনও প্রখর রোদ, এই আবহাওয়ায় শীততাপ নিয়ন্ত্রিত শপিং মলগুলি পূজার কেনাকাটার জন্য একদম আদর্শ জায়গা। কর্মব্যস্ত জীবনে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে ঘুরে পূজার কেনাকাটা করার মতো সময় অনেকেরই হয়ে ওঠে না। একই ছাদের তলায় নারী ও পুরুষ নির্বিশেষে সকলের প্রয়োজনীয় দেশি ও বিদেশী ব্রান্ডের যাবতীয় সামগ্রীর আকর্ষণীয় সম্ভার রয়েছে এই ঝাঁচকচকে শপিং মলগুলিতে।

নাম ও ঠিকানা সহ কলকাতার কিছু বিখ্যাত শপিং মলের তালিকা নিচে দেওয়া হল-

  • মানি স্কোয়ার- ১৬৪/১ মানিকতলা মেইন রোড, ইস্টার্ন মেট্রোপলিটন বাইপাস, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ ৭০০ ০৫৪।
  • সাউথ সিটি মল– ৩৭৫, প্রিন্স আনোয়ার শাহ রোড, সাউথ সিটি কমপ্লেক্স, যাদবপুর, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ ৭০০ ০৬৮।
  • কোয়েস্ট মল- ৩৩, সৈয়দ আমির আলী এভিনিউ, বেকবাগান রো, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ ৭০০ ০১৭।
  • অ্যাক্রোপোলিস মল- সেক্টর ১, ১৮৫৮/১ রাজডাঙা মেইন রোড, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ ৭০০ ১০৭।
  • সিটি সেন্টার ১- ডিসি ব্লক, সেক্টর ১, বিধাননগর, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ ৭০০ ০৬৪।
  • সিটি সেন্টার ২- বিশ্ব বাংলা সরণি, ড্যাশ ড্রোন, অ্যাকশন এরিয়া আইআইডি, নিউটাউন, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ ৭০০ ১৫৭।
  • অ্যাক্সিস মল- ওয়ান্ডারল্যান্ড পার্ক, স্ট্রিট নম্বর ১০৬, সাব-সেন্ট্রাল বিজনেস ডিস্ট্রিক্ট, অ্যাকশন এরিয়া ১, নিউটাউন, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ ৭০০ ১৫৬।

উপরোক্ত প্রত্যেকটি জায়গায় আপনি পেয়ে যাবেন পূজার কেনাকাটার জন্য আপনার প্রয়োজনীয়  যাবতীয় সামগ্রীর আকর্ষণীয় ও বিপুল সম্ভার।

Author

Moumita Sadhukhan

A big foodie and a fun-loving person, love to explore the beauty of nature and want to introduce Indian cultural heritage to the future generation. 

Please share your valuable comments and feedback

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: